-Advertisement-
Smart BrandsSmartphones
Trending

itel S23 এর দাম বাংলাদেশে

itel S23 Price in Bangladesh

itel S23 বর্তমান মোবাইল বাজারে মুখরিত একটি নাম। রোদে কালার চেন্জিং এর কারনে এই মোবাইলটি আরো জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কালার চেন্জিং ছাড়াও মোবাইটির ডিজাইন যে কোনো মানুষের নজর আকর্ষণ করবে। গত মাসে তথা জুন মাসে অফিশিয়ালি মোবাইল বাজারে লঞ্চ হয় itel S23 মোবাইলটি। মোবাইটি ২টি রং এ বাজারে পাওয়া যাচ্ছে  মিস্ট্রি হোয়াইট (পেছনে রঙ পরিবর্তন) এবং স্টারি ব্ল্যাক। আমাদের কাছে কিন্তু মিস্ট্রি হোয়াইট রঙ টি বেশি পছন্দ হয়েছে। আজকের আলোচনায় আমরা itel S23 সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা নিন্মে উপস্থাপন করা হয়েছে:

itel S23 এর দাম বাংলাদেশে 

বাংলাদেশে itel S23 দুইটি ভ্যারিয়েন্টে বাজারে এসেছে ৪ জিবি ও ৮ জিবি। তবে আপনি যে কোন ভ্যারিয়েন্টে ১২৮ জিবি ROM পাচ্ছেন। 

4/128 = ১০,৪৯০ টাকা 

8/128 =  ১২,৪৯০ টাকা 

Network

মোবাইলটি সম্পূর্ণ 4G মোবাইল। তবে আপনি আপনার প্রয়োজনের সাপেক্ষে মোবাইলটির নেটওয়ার্ক 3g কিংবা 2G করতে পারবেন। আপনি মোবাইলটিতে দুইটি ন্যানো সিম ব্যবহার করতে পারবেন। তাহলে বুজতে পেরেছেন যে যারা বড় সিম ব্যবহার করতে চাচ্ছেন সেটি সম্ভব হবে না।  মেবাইলটিতে WLAN  হিসেবে আপনি পাবেন Wifi hotspot, মোবাইলটিতে Bluetooth রয়েছে কিন্তু কোন ধরনের ব্লুটুথ ব্যবহার করা হয়েছে সেটি জানা যায়নি। মোবাইলটিতে GPS হিসেবে আপনি পাবেন A-GPS। মোবাইলটিতে সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিকে হলো আপনি সারে ১০ হাজার টাকাতে USB type- C পাচ্ছেন। সাধারণত এ বাজেটে অনেক কম্পানি তারা USB type-C দেয় না। মোবাইলটিতে OTG ও Radio রয়েছে। USB  রয়েছে সেটি হলো v2.0। 

Body

itel S23 এর দাম বাংলাদেশে
itel S23 এর দাম বাংলাদেশে

মোবাইলটি সম্পর্কে কিছু তথ্য এখনও প্রকাশ হয়নি তা হলো মোবাইলটির ওজন কত গ্রাম। তবে আন্দাজ করা যাচ্ছে মোবাইলটির ওজন ১৭০ গ্রাম থেকে ১৯৭ গ্রামের মধ্যে হবে। তবে ফোনটি ভারী হবে না। মোবাইলটির  Style হিসেবে রয়েছে Minimal Notch.  Minimal হিসেবে রয়েছে  Glass front, তবে মোবাইলটির  Body প্লাস্টিক। Dimensions মোবাইলের 8.4 mm। আপনি জানেন হয়তো ২০ হাজার টাকায়ও পানিতে ফোন ভালো থাকবে এমন ব্যবস্থা নেই সেহেতু ১০ হাজার টাকায় এই ব্যবস্থা থাকবে না এটি অতি সাধারণ বিষয়।

Display

ital S23 এর আকার ৬.৬ ইঞ্চি। তবে এটি এক হাতে খুব ভালো ভাবে ব্যবহার করা যাবে। Resolution হিসেবে থাকছে HD + 1612 x 720 pixels (267 ppi) ও Technology হিসেবে পাচ্ছেন IPS Touchscreen। এই বাজেটের ফোন গুলোতে সাধারন IPS Touchscreen  থাকে। তবে মোবাইলটির ডিসপ্লে পোটেকশন নেই। সেহেতু আপনাকে খুব ভালো ভাবে মোবাইলটি ব্যবহার করতে হবে। Features হিসেবে  Multitouch ও 90Hz রিফ্রেশ রেট। ১০ হাজার টাকার ফোনে 90Hz  রিফ্রেশ রেট দেওয়াতে আমরা কোম্পানিকে সাধুবাদ জানাই। এটি এই ফোনটিতে কাজ করতে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

Performance  

ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করকরা হয়েছে Android 12।  তবে আমরা আশা করেছিলাম সর্বশেষ লেটেস্ট ভার্সন মোবাইলটিতে থাকবে। মোবাইলটিতে Chipset হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Unisoc T606 যার সাইজ 12nm( ন্যানোমিটার)। মোবাইলটিতে প্রসেসর হিসেবে রয়েছে Octa-core 1.6GHz এবং GPU হিসেবে আপনি পাবেন ARM Mali G57 MP1 । মোবাইলটিতে RAM হিসেবে রয়েছে ৪ জিবি ও ৮ জিবি। তবে জানা গিয়েছে আপনি এই মোবাইলটিতে ভার্চুয়াল RAM ব্যবহার করতে পারবেন। ৪ জিবি RAM এর থেকে ৮ জিবি RAM এর ফোনটি আরো Smooth ভাবে কাজ করে। সেহেতু আপনার বাজেট সারে ১০ হাজার টাকা হলে আরো ২ হাজার টাকা গুছিয়ে ৮ জিবি RAM ভ্যারিয়েন্ট কিনুন।

Camera 

মোবাইলটির পিছনের অংশের ক্যামেরাতে রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ ৫০ মেগাপিক্সেল + QVGA।  মোবাইলটির পিছনের ক্যামেরায় ফিচারস হিসেবে Autofocus, LED flash, f/1.6,depth.   আপনি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন HD 1080p এ। তবে মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেল এর। বাজেট বিবেচনা করলে আর দশটা এই বাজেটের মোবাইলোর ক্যামেরা থেকে এই মোবাইলের ক্যামেরা মোটামুটি  ভালো। 

Battery

মোবাইলটিতে পাবেন৷ 5000mAh  ব্যাটারি।  যা Non-removable। ফোনটিতে চার্জ করার জন্য রয়েছে 10W ফাস্ট চার্জার। মোবাইলটি একধারে ব্যবহার করলে ৫ ঘন্টা থেকে ৬ ঘন্টা ব্যবহার করা যায়।

Storage

আপনি দুইটি ভ্যারিয়েন্টে 128 GB রম পাবেন। যা একটি ভালো বিষয় এই বাজেট বিবেচনায়। তবে আপনি মোবাইলটিতে  মেমোরি কার্ড ব্যবহার করতে পারেন। 

Sound

মোবাইলটির সাউন্ড ভালো বলা যায়। মোবাইলটিতে Loudspeaker  রয়েছে ও 3.5mm Jack আপনি মোবাইলে  ব্যবহার করতে পারবেন।

Lock

এখানে আকর্ষণীয় বিষয় হলো আপনি এই বাজেটে Side-mounted ফিঙ্গারপ্রিন্ট অপশন পাচ্ছেন ও এটি খুব ফাস্ট কাজ করে। তাছাড়া ব্যবহারকারীদের কথা চিন্তা করে রাখা হয়েছে Face Unlock সিস্টেম। 

মোবাইলটি কাদের জন্য ভালো 

যারা মূলত মোবাইলে টুকিটাকি কাজ করে থাকেন তাদের জন্য মোবাইলটি ভালো হবে। আর যারা গেমিং করেন তাদের জন্য মোবাইলটি ভালো হবে মোটামুটি। হাই গ্রাফিক্সের গেমস গুলোতে সমস্যা হলেও মিডিয়াম গ্রাফিক্সের গেম গুলো সেটা অনলাইন হলেও খুব ভালো ভাবে কোন ল্যাগ ছাড়াই আপনি ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি আরো পড়তে পারেন:

শেষ কথা 

আশা করি আপনি itel S23 মোবাইল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। পোস্টটি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। 

(সব খবর প্রতি মুহূর্তে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News পেজ)

4.5/5 - (19 votes)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *